আজ- শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১     

 আজ -শুক্রবার, ২১শে জুন, ২০২৪  | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ | ১৪ই জিলহজ, ১৪৪৫                                                   বিকাল ৫:৫৫ - মিনিট |

 

Homeজাতীয়নোয়াখালী বিভাগের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন

নোয়াখালী বিভাগের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন

বিশেষ প্রতিনিধি:

দুইশো বছরের প্রাচীন জেলা নোয়াখালীকে পৃথক বিভাগ, জেলার বিভিন্ন উপজেলাকে বিভাজন করে নতুন সাতটি উপজেলা গঠন এবং নতুন উপজেলাগুলোকে একত্রিত করে হাতিয়া কেন্দ্রিক নতুন জেলা গঠনের দাবিতে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।  অনুষ্ঠিত মানববন্ধন নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়ন সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও দৈনিক নোয়াখালী প্রতিদিন সম্পাদক মো. রফিকুল আনোয়ারের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন  ঢাকাস্থ নোয়াখালী জেলা সমিতির সভাপতি ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহাবুদ্দিন । নোয়াখালী বিভাগ বাস্তবায়ন সমন্বয় কমিটির উদ্যোগে বেলা আজ শনিবার ১১টায় এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানবন্ধন বক্তরা বলেন, ঐতিহ্যবাহী জেলা নোয়াখালীকে বাদ দিয়ে বঙ্গবন্ধুর খুনের মূল পরিকল্পনাকারী খন্দকার মোশতাকের জন্মস্থান কুমিল্লাকে কোনোভাবেই যে কোনো নামে বিভাগ মেনে নেবে না বীরশ্রেষ্ঠ রুহুল আমিনের নোয়াখালী। বাংলাদেশের জাতীয় অর্থনীতির শতকরা ৩৫ ভাগের কাছাকাছি নিয়ন্ত্রণ করে নোয়াখালী অঞ্চলের ব্যবসায়ীরা। সুতরাং নোয়াখালীকে বিভাগ ঘোষণা না করা হবে বিমাতাসুলভ আচরণ।

মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, রাজধানী থেকে সড়কপথে কুমিল্লার দূরত্ব মাত্র ৮০/৮৫ কিলোমিটার, মাত্র ঘণ্টাখানেকের পথ। আর কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলা হতে রাজধানী দূরত্ব মাত্র ৩০ কিলোমিটার সুতরাং রাজধানীর এতো কাছাকাছি জেলা কুমিল্লাকে বিভাগ করার কোনো সুযোগ নেই। অন্য দিকে কুমিল্লা থেকে মাত্র ছয়-সাত কিলোমিটার পূর্বে ভারতের ত্রিপুরার সোনামুড়া বাজার, ফলে ভৌগোলিকভাবে এবং কৌশলগত কারণেও কুমিল্লাকে কোনোভাবেই বিভাগ করা যায় না। মানচিত্রের এক কোণোয় অবস্থিত একটি পকেট জেলাকে বিভাগ করার কোন সুযোগ নেই।

এসময় বক্তারা আরো বলেন, নোয়াখালী অঞ্চলের আয়তন পাঁচ হাজার বর্গকিলোমিটার, অথচ এ জেলার উপজেলা সংখ্যা মাত্র নয়টি, পক্ষান্তরে কুমিল্লার আয়তন তিন হাজার ৮৫ বর্গকিলোমিটার, এ জেলায় উপজেলার সংখ্যা ১৭টি। দেশ-জাতির উন্নয়নের স্বার্থে এ বৈষম্য দূর করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বক্তরা বলেন, বঙ্গপোসাগর বিধৌত বৃহত্তর নোয়াখালীকে আলাদা বিভাগ ঘোষণা করা হলে বাংলাদেশের জাতীয় অর্থনীতিতে এর প্রভাব পড়বে। দেশ-জাতি এগিয়ে যাবে সমৃদ্ধির দিকে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম ফুয়হাদ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গুলজার হোসেন সৈকতের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে একাধিক সংগঠন সংহতি প্রকাশ করে এবং বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেয়।

 

 

রিলেটেড আর্টিকেল

2 COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

গুরুত্বপূর্ণ সংবাদ

রিসেন্ট কমেন্টস